বিয়ের পর প্রথমবার মিলনের নিয়ম ।

যে সকল নারী এবং পুরুষ তাদের জীবনে একবারও যৌন মিলন করেননি তাদেরকে বলা হয় ভার্জিন। প্রথমবার মিলনের নিয়ম কানুন গুলো মিলনকে মধুর করে তোলে। ছেলেদের ক্ষেত্রে এটি খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ না হলেও মেয়েদের ক্ষেত্রে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ একজন মেয়ের ক্ষেত্রে প্রথমবার মিলনের সময় তার যোনিপথে কম বা বেশি রক্তক্ষরণ হতে পারে। যৌন মিলনের ধরন যদি প্রথম বার উগ্র বা ভুল হয়ে থাকে তবে সেটি অত্যন্ত বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

 

প্রথমবার মিলনের নিয়ম এর ক্ষেত্রে কি কি বিষয়ে লক্ষ্য রাখা উচিত?

সত্যি বলতে আসলে প্রথম মিলনের নিয়ম বলে মেডিকেল সাইন্সে কোন কিছু নেই। কিন্তু যেহেতু প্রথম সহবাসের সময় মহিলাদের রক্তক্ষরণের মতো ঘটনা ঘটে সে ক্ষেত্রে আমাদের কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।

  • শুরুতেই লিঙ্গ যোনিতে প্রবেশ করাবেন না। মনে রাখতে হবে যে আপনার সঙ্গিনী এমন একটা ঘটনার সম্মুখীন হতে যাচ্ছেন যে সম্পর্কে তার পূর্ব কোন অভিজ্ঞতা নেই। এমনকি অনেক মেয়ের ক্ষেত্রে প্রথমবার মিলন একটি ভীতিকর ব্যাপার হিসেবে পরিচিত। সুতরাং মিলনের পূর্বে আপনার সঙ্গিনীকে পর্যাপ্ত পরিমাণে আদরের মাধ্যমে উত্তেজিত করুন এবং তাকে রাজি করান।
  • ফোরপ্লে বা সহবাস এর পূর্বে আদরের মাধ্যমে যদি আপনার সঙ্গিনী উত্তেজিত বোধ করেন তবে সহবাস প্রথমবার হলেও তা অনেকটা আরামদায়ক ও ফলপ্রসূ হবে এটা ধরে নেওয়া যায়। তাছাড়া ফোর প্লে আপনার সঙ্গিনী কে সন্তুষ্ট করার অন্যতম একটা হাতিয়ার। কিভাবে দ্রুত বীর্যপাত রোধ করবেন সেসম্পর্কে আমাদের লেখা রয়েছে। যখন আপনার সঙ্গিনী রাজি হবেন তখন প্রথমে আপনার লিঙ্গ যোনিতে আস্তে আস্তে ঢুকানোর চেষ্টা করুন।
  • যোনিতে লিঙ্গ আস্তে আস্তে প্রবেশ করার সময় আপনার সঙ্গিনী ব্যাথা পাচ্ছে কিনা তার ওপর নির্ভর করে আপনার কাজ কিছুক্ষণ বন্ধ রাখতে পারেন। যখন আপনার সঙ্গিনী একটু আস্বস্ত হবেন তখন পুনরায় আবার আস্তে আস্তে ঢুকানোর চেষ্টা করুন।

>>মাসিক মিস হওয়ার কত দিন পর প্রেগন্যান্ট বোঝা যায়?

  • এভাবে আস্তে আস্তে চেষ্টা করে একটু একটু করে লিঙ্গ যোনির ভেতরে ঢুকাতে থাকুন। একসময় গিয়ে দেখবেন যে পুরো লিঙ্গ আপনার সঙ্গিনীর যোনির ভেতরে ঢুকে গেছে খুব বেশি ব্যথা পাওয়া ছাড়াই।
  • তবে লিঙ্গ যোনিতে ঢুকানোর সময় আপনার সঙ্গিনী যদি খুব বেশি ব্যাথা অনুভব করে থাকেন তাহলে একটু খানি ঢুকানোর পর সঙ্গিনীকে চেপে ধরে পুরু লিঙ্গ যোনির ভেতরে ঢুকিয়ে দিন।
  • এতে একবার অল্প সময়ের জন্য ব্যথা পেলেও তা পরে ঠিক হয়ে যাবে।
  • লিঙ্গ ঢুকানোর সাথে সাথেই সঞ্চালন করা শুরু করবেন না। বরং লিঙ্গ ভিতরে ঢুকিয়ে রেখে একটুখানি অপেক্ষা করুন এবং আপনার সঙ্গিনীকে আদর করুন।
  • যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে তখন আস্তে আস্তে লিঙ্গ সঞ্চালন করার চেষ্টা করুন।
  • যোনি যদি একেবারে শুকিয়ে যায় তবে সে ক্ষেত্রে লুব্রিকেন্ট জেল ব্যবহার করতে পারেন। নিরাপদ লুব্রিকেন্ট জেল সম্পর্কে এখান থেকে জেনে নিন।

প্রথমবার সহবাসের ক্ষেত্রে কখনো তাড়াহুড়া করতে যাবেন না এবং প্রচন্ড জোরে লিঙ্গ সঞ্চালন করবেন না। এতে করে যোনির ভেতরে আঘাত এর মাধ্যমে ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে। এই ক্ষত থেকে পরবর্তীতে বড় ধরনের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাছাড়া মিলনের পূর্বে পিরিয়ড সম্পর্কিত আলাপ করে নিতে পারেন।

library_booksRelated medical and medicine article

সহবাসের কতদিন পর গর্ভবতী হয়

সহবাসের কতদিন পর গর্ভবতী হয়

সহবাসের কতদিন পর গর্ভবতী হয় এই প্রশ্নের উত্তর প্রত্যেক বিবাহিত মহিলাদেরই জানা উচিত। সহবাস করার পর এই যে একজন নারী...Continue

গর্ভবতী হওয়ার কতদিন পর বমি হয়

গর্ভবতী হওয়ার কতদিন পর বমি হয়?

গর্ভবতী হওয়ার কতদিন পর বমি হয়? গর্ভধারণের পর এমন প্রশ্ন প্রায় প্রত্যেক মহিলার মাথায় ঘুরতে থাকে। জেনে রাখা ভালো যে...Continue

প্রেগন্যান্সির লক্ষণ কি কি

প্রেগন্যান্সির লক্ষণ কি কি?

প্রেগন্যান্সির লক্ষণ কি কি? পিরিয়ড মিস হওয়াই গর্ভধারণের প্রথম লক্ষণ হিসেবে ধরা হয়। তবে এটি ছাড়াও গর্ভাবস্থায় একজন নারীর অনেক...Continue

গর্ভাবস্থায় সহবাস করা কতটা নিরাপদ

গর্ভাবস্থায় সহবাস করা কতটা নিরাপদ?

গর্ভাবস্থায় সহবাস করা কতটা নিরাপদ সে ব্যাপারে প্রত্যেক গর্ভবতী মহিলার জানা অত্যন্ত জরুরী। কারণ অন্তঃসত্ত্বা নারী এবং গর্ভের সন্তানের জন্য...Continue

arrow_right_alt